সেন্ট প্যানক্রাস রেলওয়ে স্টেশন


সেন্ট প্যানক্রাস রেলওয়ে স্টেশন


সেন্ট প্যানক্রাস রেলওয়ে স্টেশনটি লন্ডন সেন্ট প্যানক্রাস বা সেন্ট প্যানক্রাস ইন্টারন্যাশনাল নামে পরিচিত এবং আনুষ্ঠানিকভাবে ২০০৭ সাল থেকে লন্ডন সেন্ট প্যানক্রাস ইন্টারন্যাশনাল নামে পরিচিত হয়। এটি ক্যামডেন লন্ডন বরোতে ইউস্টন রোডে অবস্থিত একটি কেন্দ্রী লন্ডন রেলওয়ে প্রান্তিক। স্টেশনটি বেলজিয়াম, ফ্রান্স ও নেদারল্যান্ডস থেকে লন্ডন পর্যন্ত পরিচালিত ইউরোস্টার পরিষেবার টার্মিনাস বা প্রান্তিক। এটি মিডল্যান্ড প্রধান রেলপথে লিসেস্টার, কর্বি, ডার্বি, শেফিল্ড ও নটিংহাম পর্যন্ত ইস্ট মিডল্যান্ডস রেলওয়ে পরিষেবা, সাউথ-ইস্টার্ন ইবসফ্লিট ইন্টারন্যাশনাল ও অ্যাশফোর্ড ইন্টারন্যাশনাল হয়ে কেন্টে পর্যন্ত উচ্চ-গতির ট্রেন এবং থেমসলিংক বেডফোর্ড, কেমব্রিজ, পিটারবরো, ব্রাইটন ও গ্যাটউইক বিমানবন্দর পর্যন্ত ক্রস-লন্ডন পরিষেবা প্রদান করে। এটি ব্রিটিশ লাইব্রেরি, রিজেন্ট'স খাল ও লন্ডন কিং'স ক্রস রেলওয়ে স্টেশনের মধ্যে দাঁড়িয়ে আছে। স্টেশনটি কিংস ক্রস সেন্ট প্যানক্রাসের সঙ্গে একটি লন্ডন আন্ডারগ্রাউন্ড স্টেশন ভাগ করে নেয়।

স্টেশনটি মিডল্যান্ড রেলওয়ে (এমআর) দ্বারা নির্মিত হয়েছিল, যার মিডল্যান্ডস ও উত্তর ইংল্যান্ড জুড়ে একটি বিস্তৃত রেল নেটওয়ার্ক ছিল, কিন্তু লন্ডনে কোন নিবেদিত রেলপথ ছিল না। এমআর ১৮৬২-এর আন্তর্জাতিক প্রদর্শনীর পর রেল ট্রাফিক সমস্যা উপলব্ধি করে তার নিজস্ব রেল প্রান্তিকের সাথে বেডফোর্ড থেকে লন্ডনের সাথে একটি সংযোগ তৈরি করার সিদ্ধান্ত নেয়। স্টেশনটি উইলিয়াম হেনরি বার্লো কর্তৃক নকশা করা হয়েছিল এবং একটি একক-স্প্যান লোহার ছাদ দিয়ে নির্মিত হয়েছিল। স্টেশনটি ১৮৬৮ সালের ১লা অক্টোবর খোলার পর, এমআর স্টেশনের সম্মুখভাগে মিডল্যান্ড গ্র্যান্ড হোটেল নির্মাণ করেন, যা এর স্থাপত্যের জন্য ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়েছে এবং বর্তমানে এটি স্টেশনের বাকি অংশের সাথে একটি গ্রেড ১ তালিকাভুক্ত ভবন।

সেন্ট প্যানক্রাসকে ১৯৬০-এর দশকের শেষের দিকে সম্পূর্ণরূপে ভেঙে ফেলা এবং কিংস ক্রস ও ইউস্টনের জন্য পরিষেবাগুলিকে সরিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছিল, যার ফলে প্রচণ্ড বিরোধিতা হয়েছিল। পূর্ব লন্ডন জুড়ে একটি শহুরে পুনর্নবীকরণ পরিকল্পনার অংশ হিসাবে চ্যানেল টানেল রেল লিঙ্ক/হাই-স্পিড ১/এইচএস১-এর প্রান্তিক হওয়ার জন্য কমপ্লেক্সটি £৮০০ মিলিয়ন ব্যয়ে সংস্কার করা হয়েছিল, যা সংস্কারের পরে ২০০৭ সালের নভেম্বর মাসে রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ কর্তৃক খোলা হয়েছিল। হাই-স্পিড ১ ও চ্যানেল টানেলের মাধ্যমে ইউরোপের মূল ভূখণ্ডের সঙ্গে ইউরোস্টার পরিষেবার পরিচালনার জন্য একটি নিরাপত্তা-সিলযুক্ত টার্মিনাল বা প্রান্তিক এলাকা তৈরি করা হয়েছিল, যেখানে ইংল্যান্ডের উত্তর ও দক্ষিণ-পূর্বের অভ্যন্তরীণ ট্রেনের জন্য প্ল্যাটফর্ম রয়েছে। পুনরুদ্ধার করা স্টেশনটিতে ১৫ টি প্ল্যাটফর্ম, একটি শপিং সেন্টার ও একটি কোচ সুবিধা রয়েছে। লন্ডন সেন্ট প্যানক্রাস ইন্টারন্যাশনাল এইচএস১ লিমিটেডের মালিকানাধীন ও নেটওয়ার্ক রেলের একটি সহযোগী সংস্থা নেটওয়ার্ক রেল (হাই স্পিড) দ্বারা পরিচালিত।

তথ্যসূত্র

বহিঃসংযোগ

  • প্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট

সেন্ট প্যানক্রাস রেলওয়ে স্টেশন


Langue des articles




Quelques articles à proximité

Non trouvé