নিম, ফ্রান্স


নিম, ফ্রান্স


নিম ফ্রান্সের দক্ষিণাঞ্চলের অক্সিতানি রেজিওঁর গার দেপার্তমঁর একটি প্রেফ্যক্ত্যুর বা প্রশাসনিক জেলা। ভূমধ্যসাগর ও সেভেনের মধ্যে অবস্থিত নিম কম্যুনের জনসংখ্যা ২০১৬ সালে আনুমানিক ১৫১,০০১ ছিল।

ইতালির বাইরে সবচেয়ে রোমান শহর বলে অভিহিত নিম শহরটির ইতিহাস বেশ পুরনো। রোমান সাম্রাজ্যের অধীনে শহরটি আঞ্চলিক রাজধানী ছিল এবং ৫০,০০০-৬০,০০০ লোকের আবাস ছিল। নিম শহরের কয়েকটি বিখ্যাত স্মৃতিস্তম্ভ হল অ্যারেনা অব নিম ও মেসন কারে। এই সকল কারণে শহরটিকে ফরাসি রোম বলে অভিহিত করা হয়।

ইতিহাস

প্রাচীন যুগ

নিমের সের পারদিতে নব্য প্রস্তর যুগীয় স্থান আবিষ্কারের মধ্য দিয়ে এই শহরে খ্রিষ্টপূর্ব ৪০০০ থেকে ৩০০০ অব্দে অর্ধ-বর্বর কৃষকদের বসবাসের প্রমাণ পাওয়া যায়।

কুরবেসাকে মধ্য ব্রোঞ্জ যুগে পাথরের স্তম্ভ পাওয়া গেছে। দুই মিটার উচ্চতা বিশিষ্ট এই চুনাপাথরের স্তম্ভ খ্রিষ্টপূর্ব ২৫০০ অব্দের বলে ধারণা করা হয় এবং একে নিমের প্রাচীনতম স্মৃতিস্তম্ভ বলে গণ্য করা হয়।

এখানকার গ্রামের কুটিরগুলোতে ব্রোঞ্জ যুগের চিহ্ন রয়ে গেছে। ব্রোঞ্জ যুগে এই এলাকার জনসংখ্যা বৃদ্ধি পায়।

খ্রিষ্টপূর্ব ৬০০-১২১ অব্দ

কাভালিয়ে পর্বতের চূড়ায় এই এলাকার প্রথম দিকের লৌহ যুগীয় দুর্গ বিশিষ্ট জনবসতির সন্ধান পাওয়া যায়, যেখান থেকে এই শহরের উৎপত্তি। খ্রিষ্টপূর্ব ৩য় ও ২য় শতাব্দীতে পর্বতের চূড়ায় চারপাশে দেয়াল বিশিষ্ট শুকনো পাথরের দালান নির্মাণ করা হয়, যা পরবর্তী কালে তুর মাইনের অন্তর্ভুক্ত হয়। ভোলকে আরেকোমিকি জাতি কাভালিয়ে পর্বতের পাদদেশে বসতি স্থাপন করে এবং নেমাউসুস দেবতার প্রার্থনার উদ্দেশ্যে একটি পুণ্যস্থান নির্মাণ করে।

ওয়ারিয়র অব গ্রেজঁকে দক্ষিণ গোলের প্রাচীনতম স্বদেশি স্থাপত্যকর্ম বলে অভিহিত করা হয়।

খ্রিষ্টপূর্ব ১২৩ অব্দে রোমান সেনাপ্রধান কুইনতুস ফাবিউস মাক্সিমুস এই এলাকায় গ্যালিক উপজাতিদের আক্রমণ করে এবং আলোব্রোজেস ও আর্ভের্নিদের পরাজিত, অন্যদিকে ভোলকে জাতি কোন বাধা প্রদান করেনি। খ্রিষ্টপূর্ব ১২১ অব্দে রোমান প্রদেশ গালিয়া ত্রান্সালপিনা প্রতিষ্ঠিত হয় এবং খ্রিষ্টপূর্ব ১১৮ অব্দে ভিয়া দোমিতিয়া নির্মিত হয়।

ফরাসি বিপ্লব থেকে বর্তমান

নিমে ইউরোপীয় অর্থনৈতিক সংকট পুরোদমে আঘাত হানার পর বিপ্লবী যুগে রাজনৈতিক ও ধর্মীয় বিরোধী ঘুমন্ত অপশক্তিকে জাগ্রত করে তোলে। ১৮১৫ সাল পর্যন্ত প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও অর্থনৈতিক মন্দা এবং খুন, লুণ্ঠন ও অগ্নিসংযোগের উপদ্রব বৃদ্ধি পায়। নিমকে পরবর্তী কালে বাস-লানিয়েদোকের মেট্রোপলিস হিসেবে উত্তীর্ণ করা হয় এবং নতুন ধরনের কাজ সৃষ্টির মধ্য দিয়ে এর শিল্পে পরিবর্তন আনা হয়। একই সময়ে পার্শ্ববর্তী গ্রামে বাজারের চাহিদা অনুযায়ী সম্পদের যোগান দেওয়া হয়।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধকালীন মাক্যু যোদ্ধা জঁ রোবের ও ভিনিসিও ফাইতাকে ১৯৪৩ সালের ২২শে এপ্রিল নিমে হত্যা করা হয়। ১৯৪৪ সালে নিমের মার্শালের স্থানটি মার্কিন বোমারু কর্তৃক বোমা দিয়ে উড়িয়ে দেওয়া হয়।

১৯৮৩ সালের নভেম্বর মাস থেকে ফরাসি বিদেশি পদাতিক সেনাদল দ্বিতীয় বিদেশি পদাতিক রেজিমেন্ট নিম শহরে মোতায়ন রয়েছে।

Turnbull & Asser

পরিবহন

নিম-আলে-সামার্গে-সেভেন বিমানবন্দর এই শহরে আকাশপথের সেবা প্রদান করে। গার দ্য নিম এই শহরের কেন্দ্রীয় রেলওয়ে স্টেশন। এখান থেকে উচ্চ-গতির রেলগাড়ি দিয়ে পারি, মার্সেই, মোঁপেলিয়ে, নারবোন, তুলুজ, পের্পিনিয়ঁ, ফিগেরা ও স্পেনের বার্সেলোনা ও অন্যান্য আঞ্চলিক গন্তব্যের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করা হয়। মোটরওয়ে এ৯ দিয়ে নিমের সাথে অরেঞ্জ, মোঁপেলিয়ে, নারবোন ও পের্পিনিয়ঁ এবং এ৫৪ দিয়ে অর্লে ও সালোঁ-দ্য-প্রোভঁসের সাথে সংযোগ স্থাপন করা হয়।

নিম ও আভিনিয়োঁর মধ্যকার বর্তমান রুটেই আরেকটি নতুন রেলওয়ে স্টেশন চালু করা হয়েছে। এটি নতুন লাইনে ও স্থানীয় রেল পরিষেবার সংযোগ স্থাপন করে।

নিম বাস স্টেশনটি শহরের কেন্দ্রীয় রেলওয়ে স্টেশনের কাছাকাছি অবস্থিত। পার্শ্ববর্তী যে সকল শহর ও গ্রামে রেলপথ নেই সে সকল স্থানে বাস যাতায়াত করে।

তথ্যসূত্র

বহিঃসংযোগ

  • 2° Régiment étranger d'infanterie
  • Practical Guide to Nîmes Airport
  • City council website
  • The official Web site of Roman Nîmes
  • Images of Roman remains of Nîmes
  • Photogallery of Nîmes
  • Regordane Info – The independent portal for The Regordane Way or St Gilles Trail The Regordane passes through Nîmes. (in English and French)


নিম, ফ্রান্স


Langue des articles



Quelques articles à proximité

Non trouvé